মঙ্গলবার   ১১ আগস্ট ২০২০   শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭   ২১ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
২৮

অল্পদিনের মধ্যেই চালু হচ্ছে সরকারি “ফ্যাক্ট চেকার টুলস”

প্রকাশিত: ১৬ জুলাই ২০২০  

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং গুজব ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে মূলধারার গণমাধ্যমকে সম্পৃক্ত করে মানুষের কাছে সঠিক তথ্য পৌঁছে দিয়ে করোনা মহামারি সঙ্কট মোকাবেলা করেছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

অপরদিকে সারাদেশে মানুষের দোরগোড়ায় ইনটারনেট পৌঁছে দেয়ায় প্রযুক্তি ব্যবহার করে করোনা ও মিথ্যা অপপ্রচারের মহামারি সম্ভব হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক।

তিনি বলেছেন, এই মুহূর্তে পুরো বিশ্বকে দুইটি মহামারির মোকাবেলা করতে হচ্ছে। একটি করোনা ভাইরাস মহামারি অপরটি মিথ্যা অপপ্রচারের মহামারি। এটা শুধু বাংলাদেশ নয়, ইউরোপ, আমেরিকা, চীন, জাপান, এশিয়া যেখানেই আপনি যান, যে দেশের কথাই আপনি বলেন,সেই দেশ যতই উন্নত বা প্রযুক্তির দিক দিয়ে উন্নত হোক না কেন সবাইকে এই দ্বিতীয় মহামারির সঙ্গে মোকাবেলা করতে হচ্ছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকার এইদুটি সংকটের সাথে সাথে আম্পান নামের একটি ঘুর্ণিঝড়ের সাথেও মোকাবেলা সম্ভব হয়েছে। আমরা সংকটের শুরুতেই একটি ওয়েবসাইট তৈরি করেছিলাম যেখানে করোনা সংকট মোকাবেলায় জনগনকে সচেতন করতে এবং কোন এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ পাবলিক প্রেসক্রিপশন, কোন এলাকায় হাসপাতালের সংখ্যা কত ও সেলফ টেস্ট সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য ছিলো। সারাদেশে মানুষের দোরগোড়ায় ইনটারনেট পৌঁছে যাওয়ার ফলে অবাধ তথ্য প্রবাহের মাধ্যমে করোনা সংকট মোকাবেলা সহজ হয়েছে।

অনিবন্ধিত কোন ওয়েবসাইট বা নিউজ সাইটের কোন তথ্য যেন মানুষ বিশ্বাস না করে সে ব্যাপারে সকলকে সচেতন থাকতে আহ্বান জানান তিনি। তিনি বলেন, আমরা যদি বাজারে একটি পণ্য কিনতে যাই, সেটি যাচাই-বাছাই করে দেখি। একইভাবে নিউমিডিয়াতে দেখা তথ্য যাচাই-বাছাই করাও আমাদের দায়িত্ব। নিবন্ধিতদের জবাবদিহিতা থাকলেও অনিবন্ধিতদের থাকে না।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, অনলাইনের সুরক্ষা ও বিশ্বাসযোগ্যতা যাচাইয়ে আইসিটি বিভাগ একটি সাইবার হেল্প ডেস্ক ফ্যাক্টচেক.গভ.বিডি টুলস তৈরি করছে। টুলসটি তৈরি শেষের দিকে।

খুব অল্পদিনের মধ্যেই টুলটি অবমুক্ত করা হবে জানিয়ে পলক বলেন, এই টুলসের মাধ্যমে সোশ্যাল মিডিয়া বা অনলাইনের তথ্য সহজেই যাচাই করা যাবে।

এসময় আরো বক্তব্য রাখেন- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে সাবেক উপাচার্য, ডঃ আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক, সুচিন্তা ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ এ. আরাফাত, ৭১ টিভি লিমিটেডের কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স এডিটর মিথিলা ফারজানা, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য।

ওয়েবিনারটি সঞ্চালনা করেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার শাহ্‌ আলী ফারহাদ।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর