শনিবার   ০৪ জুলাই ২০২০   আষাঢ় ২০ ১৪২৭   ১৩ জ্বিলকদ ১৪৪১

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৬৭

করোনা রোগীদের জন্য বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা

প্রকাশিত: ২৯ জুন ২০২০  

করোনাভাইরাসে সঙ্কটাপন্ন রোগীদের জন্য ‘জয় বাংলা অক্সিজেন সেবা’ চালু করেছেন ছাত্রলীগের তিন নেতা। ব্যক্তিগত উদ্যোগ, বন্ধু-বান্ধব ও শুভাকাঙ্ক্ষীদের আর্থিক সহায়তায় প্রাথমিকভাবে ১২টি অক্সিজেন সিলিন্ডার নিয়ে বৃহস্পতিবার থেকে এই কার্যক্রম শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছেন তারা। তবে করোনা রোগী ছাড়া অন্য রোগীরাও এই সেবা নিতে পারবেন।

ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ডাকসুর সদ্য সাবেক স্বাধীনতা সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক সাদ বিন কাদের চৌধুরী এই কার্যক্রমের উদ্যোক্তা। তার সঙ্গে রয়েছেন ছাত্রলীগের উপ-বিজ্ঞান বিষয়ক সম্পাদক সবুর খান কলিন্স এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডাকসুর সদস্য রফিকুল ইসলাম সবুজ।

রাজধানীর যে কোনও এলাকা থেকে ০১৬২৩০০০১০০, ০১৬৭৭১২৫৭৫৮, ০১৭২৫৩৪৩০৩৮ নম্বরে ফোন করলে তাৎক্ষণিকভাবে রোগীর বাসায় অক্সিজেন সিলিন্ডার পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন তারা।

উদ্যোক্তারা জানান, এই সেবামূলক কাজে কোনও ফি কিংবা জামানত নেওয়া হবে না। তবে এই সেবা পেতে হলে চিকিৎসকের ব্যবস্থাপত্র ও জাতীয় পরিচয়পত্র দেখাতে হবে। পাশাপাশি সেবা গ্রহণের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সিলিন্ডার ফেরত দিতে হবে।

সাদ বিন কাদের চৌধুরী বলেন, ইতোমধ্যে দুজন রোগীকে এ সেবা দেওয়া হয়েছে। দেশের পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত আমাদের এ কার্যক্রম চলবে। শুধু করোনাভাইরাস আক্রান্ত রোগীই নন, অন্যান্য রোগীর জন্যও অক্সিজেনের প্রয়োজন হলে বিনামূল্যে জয় বাংলা অক্সিজেন সেবা পাওয়া যাবে বলে জানান সাদ।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের ফুসফুস আক্রান্ত হয় বলে অনেক ক্ষেত্রে শ্বাসকষ্ট দেখা দেয়। ফলে সাম্প্রতিক সময়ে অক্সিজেন সিলিন্ডারের চাহিদা বেড়ে গেছে বলে এই উদ্যোগ নেন তারা।

সবুর খান কলিন্স বলেন, অক্সিজেনের অভাবে যেন কেউ মারা না যায় সেজন্য আমাদের ক্ষুদ্র সামর্থ্য অনুযায়ী এই উদ্যোগ। যার যার অবস্থান থেকে এগিয়ে এলে আশা করি অক্সিজেনের অভাবে কেউ মারা যাবে না।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর