বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৭   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
১৩০

ঘৃণিত বলেই বিয়ের জন্য মেয়ে পান না: ফখরুলকে হানিফ

প্রকাশিত: ২৫ অক্টোবর ২০২০  

ফখরুল বলেছিলেন, ‘১০ বছর ধরে আমরা হয়রানির শিকার হচ্ছি। এখন এমন হয়েছে, সামাজিকভাবে সম্পর্ক তৈরিতেও আওয়ামী লীগ-বিএনপি দেখা হচ্ছে। ছেলে বিএনপি করে শুনলে মেয়ে বিয়েও দেয়া হচ্ছে না। এখানে ভালো কিছু আশা করা অসম্ভব’

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, বিএনপি ‘ঘৃণিত’ বলেই তাদের দলের লোকদের সঙ্গে কেউ মেয়ে বিয়ে দিতে চায় না।

ছেলে বিএনপি করলে কেউ মেয়ে দেয় না বলে দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতিক্রিয়ায় হানিফ এ কথা বলেন।

শনিবার কুষ্টিয়ায় এক অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন ক্ষমতাসীন দলের নেতা।

তিন দিন আগে ঠাকুরগাঁওয়ে এক মতবিনিময়ে বিএনপি মহাসচিব তার দলের দুর্দশা তুলে ধরতে গিয়ে ছেলে বিয়ে দিতে না পারার আক্ষেপের কথা বলেন।

ফখরুল সেদিন বলেন, ‘১০ বছর ধরে আমরা হয়রানির শিকার হচ্ছি। এখন এমন হয়েছে, সামাজিকভাবে সম্পর্ক তৈরিতেও আওয়ামী লীগ-বিএনপি দেখা হচ্ছে। ছেলে বিএনপি করে শুনলে মেয়ে বিয়েও দেয়া হচ্ছে না। এখানে ভালো কিছু আশা করা অসম্ভব।’

জবাবে হানিফ বলেন, ‘বিএনপির এখন এতই দৈন্যদশা যে, বিএনপি করে এটা শুনলে কেউ মেয়ে বিয়ে দিতে চাচ্ছে না।

‘বিএনপির কর্মকাণ্ডের কারণেই তারা সমাজে অগ্রহণযোগ্য ও ঘৃণিত হয়ে গেছে। চরম হতাশায় পড়ে তারা নানা সময়ে অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছে।’

টাকার বিনিময়ে আওয়ামী লীগের পদ বিক্রি হয় বলে ফখরুলের অভিযোগেরও জবাব দেন হানিফ। বলেন, ‘আওয়ামী লীগ কখনও দলীয় পদ কেনাবেচার রাজনীতি করে না। এটা বিএনপির কাজ। এই অভ্যাস তো বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান করেছিলেন। উনি যখন দল গঠন করেছিলেন, তখন বিভিন্ন দল ভেঙে তার দলে যোগদান করানোর জন্য টাকা দিয়ে কেনাবেচা করেছিলেন।’

হানিফ বক্তব্য রাখছিলেন কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রোটারি ক্লাব আয়োজিত অনুষ্ঠানে। রোটারিয়ান অজয় সুরেকারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন, পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক নুরুন-নাহার বেগম, জেলা বিএমএর সভাপতি মুস্তানজিদ বক্তব্য রাখেন।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর