শুক্রবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৯ ১৪২৭   ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৯৯

দুর্নীতির বিরুদ্ধে রিপোর্ট সরকারকে ব্যবস্থা নিতে সহায়তা করে

প্রকাশিত: ২৬ অক্টোবর ২০২০  

দুর্নীতি ও সামাজিক অসংগতির বিরুদ্ধে রিপোর্ট সরকারকে ব্যবস্থা নিতে সহায়তা করে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সাংবাদিকরা সমাজের দর্পণ, তাদের দেশপ্রেম ও দায়িত্বশীলতা নিয়ে কাজ করতে হবে। সকালে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির রজতজয়ন্তীর অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, সন্ত্রাসী, দুর্নীতিবাজ দলের কেউ হলেও ছাড় দেয়া হচ্ছে না।

দুই যুগেরও বেশি সময় অতিবাহিত করে রজতজয়ন্তী উদযাপন করছে প্রতিবেদকদের সংগঠন ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি। এ আয়োজনের প্রধান অতিথি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি বর্ণাঢ্য এ অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।

বক্তব্যের শুরুতেই স্বাধীন গণমাধ্যমের বিকাশ ও সংবাদপত্রের সঙ্গে জাতির পিতার সংশ্লিষ্টতার বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী। সমালোচনা করেন, পঁচাত্তর-পরবর্তী সরকারগুলোর।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, একটা সময় আমাদের দেশে ছিল যে যতই দুর্নীতি হোক সেগুলোকে ধামাচাপা দেয়া হতো। আর কথাগুলো কার্পেটের নিচে যেভাবে রেখে দেয়, সেভাবে রাখা হতো। আমাদের সরকার আমরা তা করছি না।

সরকারপ্রধান বলেন, দুর্নীতির বা অসংগতির কোনও রিপোর্ট সরকারকে ব্যবস্থা নিতে সহায়তা করে। দুর্নীতিবাজ দলের বড় পদের কোনও নেতা হলেও ছাড় দেয়া হচ্ছে না, উল্লেখ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, মানুষের কল্যাণের চিন্তা করে সাংবাদিকরা কাজ করবেন। আপনাদের রিপোর্ট অনেক সহায়তা করে।

হয়রানিমূলকভাবে যাতে সাংবাদিকদের গ্রেপ্তার না করা হয়, সেদিকে লক্ষ্য রেখে আইন সংশোধন করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর