রোববার   ০৬ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৭   ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৯৩

দৃষ্টিনন্দন ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে

প্রকাশিত: ৩০ অক্টোবর ২০২০  

গত ১২ মার্চ ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা রুটে দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের নকশাও করা হয়েছে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য। এই এক্সপ্রেসওয়েটি এশীয় মহাসড়কের অংশ। এত গাড়ি প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য রাখা হয়েছে আটটি পথ। আগামী ২০ বছরের ক্রমবর্ধমান যান চলাচলের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ১১ হাজার ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন এক্সপ্রেসওয়েটি ইউরোপের অনেক দৃষ্টিনন্দন সড়ককেও হার মানায় বলে মনে করেন অনেকেই। দেখে নিন এই এক্সপ্রেসওয়ের অসাধারণ কিছু দৃশ্য।

গত ১২ মার্চ ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা রুটে দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের নকশাও করা হয়েছে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য। এই এক্সপ্রেসওয়েটি এশীয় মহাসড়কের অংশ। এত গাড়ি প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য রাখা হয়েছে আটটি পথ। আগামী ২০ বছরের ক্রমবর্ধমান যান চলাচলের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ১১ হাজার ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন এক্সপ্রেসওয়েটি ইউরোপের অনেক দৃষ্টিনন্দন সড়ককেও হার মানায় বলে মনে করেন অনেকেই। দেখে নিন এই এক্সপ্রেসওয়ের অসাধারণ কিছু দৃশ্য।

গত ১২ মার্চ ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা রুটে দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের নকশাও করা হয়েছে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য। এই এক্সপ্রেসওয়েটি এশীয় মহাসড়কের অংশ। এত গাড়ি প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য রাখা হয়েছে আটটি পথ। আগামী ২০ বছরের ক্রমবর্ধমান যান চলাচলের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ১১ হাজার ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন এক্সপ্রেসওয়েটি ইউরোপের অনেক দৃষ্টিনন্দন সড়ককেও হার মানায় বলে মনে করেন অনেকেই। দেখে নিন এই এক্সপ্রেসওয়ের অসাধারণ কিছু দৃশ্য।

গত ১২ মার্চ ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা রুটে দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ঢাকা-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ের নকশাও করা হয়েছে ঘণ্টায় ৮০ কিলোমিটার গতিতে গাড়ি চালানোর জন্য। এই এক্সপ্রেসওয়েটি এশীয় মহাসড়কের অংশ। এত গাড়ি প্রবেশ ও বের হওয়ার জন্য রাখা হয়েছে আটটি পথ। আগামী ২০ বছরের ক্রমবর্ধমান যান চলাচলের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে ১১ হাজার ৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে এটি নির্মাণ করা হয়েছে। অত্যন্ত দৃষ্টিনন্দন এক্সপ্রেসওয়েটি ইউরোপের অনেক দৃষ্টিনন্দন সড়ককেও হার মানায় বলে মনে করেন অনেকেই। দেখে নিন এই এক্সপ্রেসওয়ের অসাধারণ কিছু দৃশ্য।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর