মঙ্গলবার   ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০   আশ্বিন ১৪ ১৪২৭   ১১ সফর ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৯৪

পেকুয়াকে এগিয়ে নিতে সবার ঐক্যবদ্ধতা দরকার- জাফর আলম এমপি

প্রকাশিত: ২৪ আগস্ট ২০২০  

পেকুয়ায় উপজেলার মাসিক আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার (২৩আগস্ট) সকালে ১১টায় উপজেলার পরিষদের হলরুমে এই সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাঈকা শাহাদাতের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, চকরিয়া পেকুয়া আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব জাফর আলম (বিএ.অনার্স.এমএ), বক্তব্য রাখেন, পেকুয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি কামরুল আজম, উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং এর সভাপতি এড.কামাল হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম, ভাইস চেয়ারম্যান উম্মে কুলসুম মিনু, আজিজুল হক, শিক্ষা কর্মকর্তা সালামত উল্লাহ খান, ডাক্তার মুজিবুর রহমান, সাংবাদিক জহিরুল ইসলাম, মাহাবুব ছিদ্দিকী, চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম চৌধুরী, সাংবাদিক দিদারুল করিম, সাংবাদিক জালাল উদ্দিন, সাংবাদিক নাজিম, শ্রমিকলীগ সভাপতি নুরুল আবছার, সম্পাদক শাহাদত হোসেন ও পুজা উৎযাপন কমিটির সভাপতি সুমন বিশ্বাস। এ সময় আইনশৃঙ্খলা কমিটির সদস্যদের উপস্থিতিতে সাংসদ জাফর আলম বলেন, ছোট ছোট বিষয়কে আমরা যাতে বড় করে না দেখি। সামগ্রীকভাবে পেকুয়াকে এগিয়ে নিতে সবার ঐক্যবদ্ধতা দরকার। উজানটিয়া ইউপির চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলামের এক প্রশ্নের জবাবে সাংসদ বলেন, উজানটিয়ার করিমদাদ মিয়ার ঘাট সংলগ্ন ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ সংস্কার করতে যা টাকা প্রয়োজন হয় তা সাংসদ নিজ তহবিল ও সরকারি তহবিল থেকে দিয়ে কাজ সম্পন্ন করে দিবে। চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আ’লীগ সভাপতি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে একটি রিপোর্ট দিবে, সেই মত কাজ হবে। এ সময় সাংসদ পেকুয়াবাসী ও জনপ্রতিনিধিদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা আমার বরাবর চাহিদা দেন, টাকার চিন্তা আমি করবো।

সাংসদ জাফর আলম সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা সঠিক ও বস্তুনিষ্ট ঘটনাটি তুলে ধরবেন আশা করি। আর ছোট কোন বিষয়কে বড় করে দেখালে নেগেটিভ দিখটা সবার জন্য অমঙ্গল।

সাংবাদিক জালাল কাটাফাঁড়ি থেকে পশ্চিম উজানটিয়া পর্যন্ত ভায়া সড়কের প্রস্ততকরণ, কার্পেটিং ও গাইড ওয়াল কাজে অনিয়মের ব্যাপারে সাংসদের দৃষ্টি আকর্ষণ করলে বিষয়টি লিখিত আকারে ইউএনও বরাবর জমা দেয়ার জন্য বলেন।

উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম সাংসদ জাফর আলমের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেন, পেকুয়া সদরের গ্রামীণ সড়কগুলোর অবস্থা খুব নাজুক। শেখের কিল্লা ঘোনা সড়কটি উপজেলা চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন চেয়ারম্যানের পারিবারিক সড়ক হলেও দীর্ঘ কয়েক দশক ধরে সংস্কার নাই। এছাড়াও প্রতিটি পাড়া মহল্লার সড়কগুলো দিয়ে পায়ে হাটাও অসম্ভব হয়ে পড়েছে। একই সময়ে উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম মগনামা বরইতলি সড়কের নাজুক অবন্থা তুলে ধরেন। সাংসদ জাফর আলম এগুলো দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য প্রকৌশলী এলজিইডি ও ইউপি সচিবকে তাগাদা দেন।

উপজেলা চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, কমিউনিটি পুলিশিং সভাপতি কামাল হোসেন, উপজেলা আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল কাশেম ও সাংবাদিক দিদারের করা প্রশ্নের উত্তরে ওসি পেকুয়া কামরুল আজম বলেন, পেকুয়ার সার্বিক আইনশৃঙ্খলা আপনাদের ভাস্যমত ইনশাল্লাহ ঠিক আছে। চৌমুহনীর যানজট নিরসনে তিন কাউন্ডার ম্যানেজারের সাথে বসে দ্রুত করনীয় ঠিক করা হবে। কাঁচাবাজার স্থানান্তর করার বিষয়ে ইউএনও সাঈকা শাহাদাত বলেন, পেকুয়া বাজারে কাঁচাবাজারের জন্য দ্বিতল ভবন হচ্ছে। চৌমুহনীতে কাঁচা বাজার রাখবো কিনা তা চিন্তা করবো।
.
সদস্যদের এক প্রশ্নের জবাবে ইউএনও আরো বলেন, খাল খনন ও দূষণমুক্ত রাখতে কাজ করা হবে। একই সাথে স্লুইস গেটে বসানোর সমস্ত জাল অপসারণ করা হবে।

এই ছাড়াও সভায় মগনামা ইউপি চেয়ারম্যান শরাফত উল্লাহ চৌধুরী ওয়াসিম ১৫ আগষ্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ পরিবারের সকল শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা ও প্রয়াত মগনামার দুই জেলা আওয়ামীলীগ নেতা এডভোকেট জহিরুল ইসলাম ও নজরুল ইসলাম স্বরণে শোক প্রস্তাব করলে তাদের স্বরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এ সময় চেয়ারম্যান ওয়াসিম সাংসদ জাফর আলমের দৃষ্টি আকর্ষণ করে আরো বলেন, মগনামায় সবচেয়ে বড় সাব-মেরিন মেগা প্রকল্প বাস্তবায়ন হচ্ছে। চাকরির ক্ষেত্রে যাতে স্থানীয়দের গুরুত্ব দেয়া হয়। এছাড়াও কিছু বহিরাগত লোক ওখানে গিয়ে বারবার সমস্যা সৃষ্টি করে। যেখোন মূহর্তে বড় ঘটনার জন্ম নিতে পারে। আমি যেহেতু চেয়ারম্যান দায়টা আমার উপরও পড়ে। এক্ষেত্রে আমি সবসময় থানার ওসি কামরুল আজম ভাইদের সহযোগিতা পেয়েছি। মগনামা লঞ্চঘাটে সার্বক্ষনিক পুলিশি টহল জোরদারের দাবীও জানান চেয়ারম্যান। আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভাপতি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাঈকা শাহাদাত পেকুয়া সকল সমস্যা সামাধানে সকলের সহযোগিতা কামনা করে সভা শেষ করেন।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর