শুক্রবার   ০২ অক্টোবর ২০২০   আশ্বিন ১৬ ১৪২৭   ১৩ সফর ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৪২

বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুপ্রতিম সম্পর্কের স্থপতি বঙ্গবন্ধু

প্রকাশিত: ১৯ আগস্ট ২০২০  

বাংলাদেশের মতো ভারতও বঙ্গবন্ধুকে যথেষ্ট মান্য করে। শেখ মুজিবুর রহমানকে বাংলাদেশ যতটা শ্রদ্ধা করে, ভারতের জন্যও তিনি ঠিক ততটাই গুরুত্বপূর্ণ।

বাংলাদেশ-ভারতের বন্ধুপ্রতিম যে সম্পর্ক, তার স্থপতিও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান।

সোমবার (১৭ আগস্ট) সন্ধ্যায় ‘ট্রিবিউট টু জাতির পিতা বাংলাদেশ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান’ শীর্ষক আয়োজনে ঢাকায় নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ এ কথা বলেন। কমিশনের ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টারের আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর অসমাপপ্ত আত্মজীবনী পাঠ এবং পর্যালোচনা নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় এই অনলাইন আয়োজন।

রীভা গাঙ্গুলি দাশ বলেন, আমি যখন ছোট ছিলাম, তখন অল ইন্ডিয়া রেডিওতে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ শোনার কথা মনে আছে আমার। আমি আমার দাদুর কাছ থেকে তখন সেই বক্তৃতার গুরুত্ব জেনেছি। আর এটাও বুঝতে পেরেছি যে, আমাদের প্রতিবেশি রাষ্ট্রে কি চলছে। সেই জায়গা থেকে বর্তমানে ঢাকায় ভারতীয় হাইকমিশনার হিসেবে থেকে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আয়োজিত আজকের এই অনুষ্ঠানে যোগদান কারাটা আমার জন্য সম্মানের।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের স্থপতি। এদেশের রাজনীতি এবং সমাজতন্ত্রে তার ভূমিকা অসামান্য। বাংলাদেশের জন্য তার যে আত্মত্যাগ, তা সমগ্র বিশ্বের কাছে অনুসরণীয় এবং স্মরণযোগ্য। তিনি সবসময় বাংলাদেশের মানুষের মুখে হাসি এবং সোনার বাংলা গড়তে চেয়েছেন। আর তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সেই পথেই এগিয়ে যাচ্ছে।

সন্ধ্যায় বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে আরও কথা বলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক এবং ‘অসমাপ্ত আত্মজীবনী’ গ্রন্থের ইংরেজি অনুবাদক ড. ফখরুল আলম, বিশিষ্ট সাংবাদিক সৈয়দ বদরুল এহসান, কবি এবং ঢাকা লিট ফেস্টের কো-ফাউন্ডার সাদাফ সাজ, ভারতের কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রাজগোপাল ধর চক্রবর্তী এবং বিশ্বভারতীর সদস্য ড. শুভয়া চট্টোপাধ্যায়। আয়োজন সঞ্চালনা করেন ইন্দিরা গান্ধী কালচারাল সেন্টারের পরিচালক ড. নীপা চৌধুরী।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা