বুধবার   ০২ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৭ ১৪২৭   ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৫০

লেবাননে বাংলাদেশের ত্রাণসামগ্রী হস্তান্তর

প্রকাশিত: ১৩ আগস্ট ২০২০  

লেবাননের বৈরুতে সংঘটিত ভয়াবহ বিস্ফোরণের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বাংলাদেশ বিমানবাহিনীর সি-১৩০জে পরিবহন বিমানের মাধ্যমে পাঠানো মানবিক ও ত্রাণ সহায়তা গত সোমবার সে দেশের সরকারের প্রতিনিধির কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। বৈরুতে পাঠানো জরুরি চিকিত্সা ও খাদ্যসামগ্রী আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তরের সময় বাংলাদেশ সরকার এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভূয়সী প্রশংসা করা হয়। এ সময় সেখানে লেবানন সরকারের প্রতিনিধির পাশাপাশি লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মেজর জেনারেল মো. জাহাঙ্গীর আল মুস্তাহিদুর রহমান উপস্থিত ছিলেন। 

আইএসপিআর জানায়, বন্ধুপ্রতিম দেশসমূহে সংঘটিত যেকোনো দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যার্থে বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে জরুরি ভিত্তিতে মানবিক ও ত্রাণ সহায়তা পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব পালন করে আসছে বিমানবাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় গত রবিবার বিমানবাহিনীর পরিবহন বিমানে বৈরুতে দুর্ঘটনাকবলিত প্রবাসী বাংলাদেশি, স্থানীয় জনগণ ও জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা কার্যক্রমে নিয়োজিত বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সদস্যদের সহায়তা দেওয়ার জন্য জরুরি ত্রাণ ও চিকিৎসাসামগ্রীসহ একজন চিকিৎসককে সেখানে পাঠানো হয়। 

এ ছাড়া সেখানে নৌবাহিনীর জাহাজের বাস্তব অবস্থা নিরূপণের জন্য একটি কারিগরি মূল্যায়নকারী দলকেও বিমানবাহিনীর ওই সি-১৩০জে পরিবহন বিমানের মাধ্যমে লেবাননে পাঠানো হয়। বিমানবাহিনীর ১২ সদস্যের এয়ার ক্রু’র সমন্বয়ে গঠিত এই মিশনের নেতৃত্বে ছিলেন গ্রুপ ক্যাপ্টেন শান্তনু চৌধুরী। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষ থেকে বন্ধুত্বের নিদর্শনস্বরূপ পরিচালিত মানবিক ও ত্রাণ সহায়তা কার্যক্রমের ফলে লেবাননের সাথে বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ সুসম্পর্ক আরো বাড়বে বলে আশা করা যায়।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর