রোববার   ২৯ নভেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ১৫ ১৪২৭   ১৩ রবিউস সানি ১৪৪২

কক্সবাজার বার্তা
সর্বশেষ:
৭২ হাজার ৭৫০ কোটি টাকার প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণা ‘২০৪১ সালে মাথাপিছু আয় দাঁড়াবে সাড়ে ১২ হাজার ডলার’ রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর প্রশংসা করে অ্যাঞ্জেলিনার চিঠি ডিসেম্বরে নির্মাণ শুরু হবে দেশের প্রথম পাতাল মেট্রো রুট গোলদিঘির পাড়ে নির্মিত হচ্ছে আধুনিকমানের মারকাজ মসজিদ ২০২২ সালের মধ্যে ট্রেন চলবে কক্সবাজারে কক্সবাজারের উন্নয়নে উদ্যোগ নিলো জাতিসংঘ দ্বিতীয় পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প মহেশখালী-কুতুবদিয়ায়! এগিয়ে চলছে স্বপ্নের কর্ণফুলী টানেল নির্মাণ কাজ ১০০ হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলছে কক্সবাজারে ২৫ মেগা প্রকল্পে পাল্টে যাচ্ছে কক্সবাজার উন্নয়নে শীর্ষে কক্সবাজার
৮৭

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন নিরাপদ আবাসভূমি: এমপি কমল

প্রকাশিত: ২৪ অক্টোবর ২০২০  

হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গাপূজার মহা অষ্টমীতে রামু উপজেলা ও কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন পূজামন্ডপ পরিদর্শন, ধর্মীয় নেতা ও পুজারীদের সাথে মতবিনিময় করেন কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল।

মতবিনিময় কালে সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বলেছেন, হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দূর্গা পূজায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ব্যক্তিগত পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা এবং সকলের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করতে আমরা পুজামন্ডপ পরিদর্শনে এসেছি। এমপি কমল বলেন, শেখ হাসিনার সরকার সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতিতে বিশ্বাসী বলেই সব ধর্মের মানুষ সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির মাধ্যমে প্রিয় জন্মভূমিকে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছে।

২৪ অক্টোবর, শনিবার দুপুরে রামু উপজেলার কেন্দ্রীয় কালি মন্দির, নাথপাড়া কৃষ্ণ মন্দির, তেমুহনী দুর্গা মন্দির, রামু বাজার দুর্গা মন্দির, শ্রীকুল দুর্গা মন্দিরসহ বিভিন্ন পূজা মন্ডপ এবং সন্ধ্যায় কক্সবাজার শহরের কেন্দ্রীয় কালি মন্দির, স্বরস্বতী বাড়ি, গোলদিঘীর পাড় পুজামন্ডপসহ বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বলেন, দুর্গাপূজা হিন্দু সম্প্রদায়ের ধর্মীয় অনুষ্ঠান হলেও এটি আজ সার্বজনীন উৎসবে পরিণত হয়েছে। তিনি সকল নাগরিকের শান্তি, কল্যাণ ও সমৃদ্ধি কামনা করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ এখন ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব মানুষের নিরাপদ আবাসভূমি। এই দেশ আমাদের সকলের। আমরা প্রত্যাশা করি বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্য সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির বন্ধন অটুট রেখে ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টায় সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হবো ।

‘ধর্ম যার যার উৎসব সবার’ এ প্রতিপাদ্যে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের মতো কক্সবাজার সদর- রামুতেও শতবছর ধরে উৎসব মুখর পরিবেশে সার্বজনীন দুর্গোৎসব উদযাপন হয়ে আসছে। কিন্তু করোনা ভাইরাস সংক্রমণে বর্তমান বিশ্ব বিপর্যস্ত। ইতোমধ্যে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এই ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবকে মহামারি হিসেবে আখ্যায়িত করায় এ বছর দুর্গোৎসব জনসমাগম এড়িয়ে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে উদযাপন করা হচ্ছে।

এসময় রামু উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাধারণ সম্পাদক তপন মল্লিক, রামু উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. সালাহ উদ্দিন, রামু উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক নীতিশ বড়ুয়া, ফতেখাঁরকুল স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আজিজুল হক, কক্সবাজার হিন্দু যুব পরিষদের সভাপতি সুমন চক্রবর্তী পাইলট, রামু উপজেলা হিন্দু মহাজোট সভাপতি সুজন চক্রবর্তী, সাধারণ সম্পাদক বিবেকানন্দ শর্মা।

সন্ধ্যায় কক্সবাজার শহরের বিভিন্ন পুজামন্ডপ পরিদর্শন কালে জেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক এডভোকেট তাপস রক্ষিত, জেলা হিন্দু পরিষদ নেতা সদ্বীপ শর্মা, শহর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক ওসমান সরওয়ার আলম, সহ সভাপতি বাবুল হোসেন রনি, স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আব্দুল জব্বার, আব্দুল কাদের, তাজ উদ্দিন, মো, আলী ছোট, জিয়া হাসান, তারেক আজিজ, নুরুল আবছার, আব্দুশুক্কুর, মোস্তাক আহমদ, সাইফুদ্দিন, আবুল হোসেন, প্রমূখ নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

কক্সবাজার বার্তা
কক্সবাজার বার্তা
এই বিভাগের আরো খবর