রোববার   ২৫ অক্টোবর ২০২০   কার্তিক ৯ ১৪২৭   ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

করোনা যুদ্ধে এমপি কমলের অন্যরকম কর্মযজ্ঞ

কক্সবাজার বার্তা

প্রকাশিত : ১২:৪২ পিএম, ৯ জুন ২০২০ মঙ্গলবার

করোনা যুদ্ধে হেরে যাওয়া মানুষের দাফন কাজে এবার স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি। কক্সবাজারের রামু উপজেলার গর্জনিয়া ইউনিয়নের সমাজসেবক আয়াছ সিকদার করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করলে রবিবার (৭ জুন) সন্ধ্যায় তার দাফন কার্যে অংশ নিতে ছুটে যান এমপি কমল। রাতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে মরহুম আয়াছ সিকদারের জানাজার নামাজ শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তাঁকে দাফন করা হয়। একইরাত ১১ টায় ছুটে যান কক্সবাজারের সিনিয়র সাংবাদিক মোনায়েম খাঁনের নামাজের জানাযায় শরিক হতে। শহরের তারাবনিয়াছড়ায় জেলার প্রথম এ সাংবাদিক করোনা রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। এর আগে সদরের পিএমখালী এলাকায় এক ব্যবসায়ির জানাজার নামাজে অংশ নেন ও দাফন কার্য তদারকি করেন। করোনা পরিস্থিতিতে মৃত্যুঝুকি নিয়ে এমপি কমলের একের পর এক এহেন কর্মতৎপরতা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে সচেতন মহলের অনেকেই তাঁর এ কর্মযজ্ঞে সাধুবাদ জানিয়ে সু-স্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছেন।

জানা গেছে, বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই কক্সবাজার-৩ (সদর-রামু) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল করোনা রোগীদের সেবায় নিজেকে উৎসর্গ করার কথা ঘোষনা দিয়ে ছিলেন। যেমন কথা তেমন কাজ। কর্মহীন-অসহায় মানুষের পাশে ত্রাণ বা উপহার প্রদানে তিনি উল্লেখযোগ্য ভুমিকা পালন করে যাচ্ছেন। করোনার প্রদুর্ভাবের সাথে সাথে আক্রান্ত রোগীদের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত করেন। কখানো আইসোলেশন সেন্টারে চিকিৎসাধিন রোগেীদের খোজ খবর নেন, আবার কখনো খাদ্য সামগ্রী নিয়ে তাদের পাশে দাড়াঁন। কোন কোন সময় করোনা আক্রান্ত রোগী যারা বাড়িতে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন তাদের মনে সাহস যোগাতো ছুটে চলছেন তাদের বাড়িতে।

করোনা ভাইরাস সংক্রমনের শুরুর দিকে মানুষের পাশে থাকাদের অনেকেই যখন সংক্রমন বৃদ্ধির সাথে সাথে ভয়ে নিজেকে ঘরবন্ধি করে রেখেছে, ঠিক তখনই সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি শুরু করলের ব্যতিক্রমী এক কর্মযজ্ঞ। ছুটে চলছেন করোনাক্রান্ত রোগীর বাড়িতে। স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে পিপিই পড়ে নিজেকে নিয়োজিত করলেন করোনা রোগে আক্রান্ত বা উপসর্গে মৃতব্যক্তির দাফন কাজে। এ যেন এক যোগ্য পিতার যোগ্য সন্তান।

রাজনীতি বিশ্লেষকদের মতে সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি’র পিতা, সাবেক সাংসদ ও রাষ্ট্রদুত আলহাজ্ব ওসমান সরওয়ার আলম চৌধুরী আমৃত্যু নিজেকে মানব সেবায় নিয়োজিত রেখে জেলার শ্রেষ্ট সমাজ সেবক হিসেবে মানুষের মনে স্থান করে নিয়েছিলেন। আজ দেশ ও জাতির ক্রান্তিকালে তথ্যমন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি নিজের সংসদীয় আসন কক্সবাজারের পৌরসভা, সদর ও রামু উপজেলার মানুষের দুঃসময়ে সার্বিক সহযোগীতা অব্যাহত রেখেছেন।

সাইমুম সরওয়ার কমল এমপি বলেন, মানুষের সেবাই আমার রাজনীতি। সাধারণ মানুষের সেবা করতে গিয়ে যদি নিজেও করোনা আক্রান্ত হই এমনকি মৃত্যুবরণও করি তাতে আমার কোন দুঃখ থাকবেনা। তিনি বলেন, বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কক্সবাজারে করোনা রোগীর তোলনায় হাসপাতালের সংখ্যা কম। আমরা হাসপাতাল বৃদ্ধির চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। এমন এক দুঃসময়ে সর্বস্তরের মানুষকে তিনি সরকারের দেয়া স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার পাশাপাশি সমাজের বিত্তবান ও দানশীল ব্যক্তিদের করোনা রোগীদের পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান।