শনিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২০   অগ্রাহায়ণ ২১ ১৪২৭   ১৯ রবিউস সানি ১৪৪২

পরকিয়ায় তৃতীয় সংসার ছাড়লেন শাহাজাহান চৌধুরী কন্যা শম্পা

নিউজ ডেস্ক

কক্সবাজার সৈকত

প্রকাশিত : ০৪:৩৬ পিএম, ২৫ ডিসেম্বর ২০১৮ মঙ্গলবার

ভোট চাইতে গিয়ে ভোটারের সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে তৃতীয় স্বামীর সংসার ছাড়লেন কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি ও উখিয়া-টেকনাফের ধানের শীষের প্রার্থী শাহাজহান চৌধুরীর কন্যা নাজিয়া জাহান চৌধুরী শম্পা। তৃতীয় স্বামীর সংসার ছাড়ার পর ভোটারের সাথে শাহাজহান চৌধুরীর কন্যার পরকিয়ার খবরে বেকাদায় পড়েছে উখিয়া-টেকনাফের বিএনপির নেতাকর্মীরা। 

শাহাজাহান চৌধুরীর কন্যা শম্পা চৌধুরী বাবার জন্য ভোট চাইতে গিয়ে উখিয়ার আরাফাত চৌধুরী নামে এক ভোটারের সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়েন। আরাফাত চৌধুরী বয়সে শম্পা চৌধুরীর চয়ে ১০ বছরের ছোট। গত কদিন ধরে কক্সবাজারের বিভিন্ন অভিজাত রেস্তোঁরায় শম্পা ও মনিরকে অন্তরঙ্গ অবস্থায় দেখা গেছে। ভোটের দুই দিন পরে এই প্রমিক যুগলের বিয়ে হবে বলে জানা গেছে। 

এরআগে শাহাজাহান চৌধুরী কন্যা শম্পার ৩ বার বিয়ে হয়েছিলো। প্রথম বিয়ে ছাড়া পরের দুই বিয়ে পরকিয়া করেই করছিলো শম্পা। যদিও পর পুুরুষ আসক্ততায় বেশিদিন টিকেনি ঐ ৩টি সংসার। 

উখিয়ার বিএনপি নেতারা জানিয়েছেন, কক্সবাজার জেলা বিএনপির সভাপতি  শাহাজাহান চৌধুরীর একমাত্র কন্যা নাজিয়া জাহান চৌধুরী শম্পা কৈশোর থেকেই প্রেম ও  পুরুষ আসক্ত। স্কুল জীবনেই একাধিক সাবেক ছাত্রদল নেতার সাথে প্রেমে জড়িয়ে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে তোলেন। মেয়ের উগ্রতা ও পুরুষ আসক্তিতে বিরক্ত হয়ে শাহাজাহান চৌধুরী অল্প বয়সে কক্সবাজার হোটেল নিরিবিলির মালিক সাবেক সংসদ  লুৎফুর রহমান কাজলের ছোট ভাই মাহাবুবুর রহমন শাহিনের সাথে  শম্পার বিয়ে দেয়। 

ভদ্র স্বভাবের শাহীনের সাথে বেশিদিন টিকেনি শম্পার সংসার। ১ বাচ্চার মা হওয়ার পরেও কক্সবাজারের  সাবেক ছাত্রদল নেতা ও সিনেমার অভিনেতা রুমেলের সাথে পরকিয়ায় জড়িয়ে পড়েন শম্পা।  পরকিয়ার প্রেমের টানে ২ বছরের কন্যা সন্তান রেখে রুমেলের হাত ধরে পালিয়ে যায় শম্পা। রুমেল-শম্পা বিয়ে করে  ২ বছর সংসার করে। সেই সময় স্বামী-স্ত্রী দুজনই মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। মেয়েকে মাদকাসক্তি থেকে রক্ষা করতে রুমেলের কাছ থেকে ছাড়িয়ে আনেন পিতা শাহাজাহান চৌধুরী। 

রুমেলের সাথে ছাড়াছাড়ির পরে দীর্ঘদিন উখিয়ায় পিতার ঘরে ছিলো শম্পা। সেই সময় কক্সবাজার আইন কলেজ থেকে এলএলবি পাশ করে সে। 

আইনজীবী হওয়ার পরে কিছুদিন কক্সবাজারে উকালতি করার পর ঢাকায় চলে যায় শম্পা চৌধুরী। ঢাকায় গিয়ে এক বিবাহিত আইজীবীর সাথে পরকিয়া করে তৃতীয় বিয়ে করে শম্পা। গত বছর সেই আইনজীবীর সাথেও শম্পা চৌধুরীর ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়।